আপনার ই-কমার্স বিজনেসের জন্য সেরা ১০ টি টুল

যেকোনো বিজনেস করতে গেলে আমাদের অবশ্যই কিছু টুলসের দরকার পরে।আমরা যারা অনলাইন ভিত্তিক বিজনেস করি বিশেষ করে যারা ই-কমার্স বিজনেস করি তাদের প্রায়ই বিভিন্ন টুলসের সাহায্য নিতে হয় ব্যাবসায়িক কাজের প্রয়োজনে।আজকের এই আর্টিকেলে আমি এমন ১০ টি টুলস নিয়ে আলোচনা করব যে টুলস গুলো ব্যাবহার করে খুব সহজেই আপনার ই-কমার্স বিজনেস কে আরও সাফল্যর দিকে এগিয়ে নিতে পারবেন।তাহলে চলুন শুরু করা যাকঃ-

১। Facebook Bot: ফেসবুক বট সেলস অটোমেসন ও মার্কেটিং এর জন্য খুবই ভালো একটি টুলস।আপনি হয়ত খেয়াল করেছেন অনেক ফেসবুক পেইজে মেসেজ করলে পেজ আপনাকে উত্তর এর সাথে কিছু অপশন দিয়ে দেয়। এবং আপনি যেকোন অপশনে ক্লিক করলে সাথে সাথেই কিছু একটা উত্তর পেয়ে যান। এটা অটো সিস্টেম ফেসবুক বট দিয়ে করা হয় তাহকে।আপনিও যদি আপনার ফেসবুক পেজে এমন করতে চান তাহলে ট্রাই করতে পারেন Manychat, Chatfuel, Mobilemonkey এগুলো দেশের বাইরের কিছু ফেসবুক বট টুলস। আমাদের দেশেও কিছু আছে কিন্তু নাম উল্লেখ করলাম না।আপনি এই ফেসবুক বটগুলো ফ্রিতে ট্রাই করতে পারেন। এদের পেইড ভার্সনো আছে।

২। Hotjar: কাস্টমারের বিহেভিয়ার বুঝার জন্য আপনি ওয়েবসাইটে হটজার ইন্সটল করতে পারেন। এটা ফ্রি টুল। আপনি জানতে পারবেন, আপনার ওয়েবসাইটের ভিজিটর কোথায় বেশী ক্লিক করে, কোন কোন ম্যানুতে ক্লিক করতেছে ইত্যাদি।

৩। Google Analytics: জেনে নিন আপনার ওয়েবসাইটে ভিজিটর কোথা থেকে আসতেছে, কতক্ষন থাকতেছে, কত পারসেন্ট ভিজিটর ওয়েবসাইটে ঢুকেই চলে যাচ্ছে, কোন একসন না নিয়েই। এটা গুগল ফ্রিতেই দেয়।

৪। Google Trends: গুগলের এই সাইটটি আপনি আপনার ই-কমার্স বিজনেসের  প্রোডাক্ট রিসার্চের জন্য ব্যবহার করতে পারেন একদম ফ্রীতে। ধরেন আপনি আপনার সাইটে Mobile Phone বিক্রি করতে চাচ্ছেন। আপনি Mobile Phone লিখে গুগল ট্রেন্ডস এ সার্চ করে জেনে নিতে পারেন, কোন দেশ থেকে কি পরিমান মানুষ Mobile Phone লিখে গুগলে সার্চ দেয়।বর্তমান সময়ে সবাই মোবাইল ফোন ব্যাবহার করে আর এই কারনেই এই প্রোডাক্টের সেল অনেক বেশি।যাইহোক অন্য প্রসঙ্গে না যাই।

৫। Facebook Pixel: আপনি একটা ওয়েবসাইট ভিজিট করেছেন, কিছুক্ষন পরে আপনি সেই ওয়েবসাইটের অ্যাড আপনার টাইমলাইনে দেখতেছেন। ফেসবুক পিক্সেল এটা করতে সাহায্য করে।

৬। Tawk: 100% ফ্রি লাইভ চ্যাটিং সফটওয়ার। আপনার ওয়েবসাইটে কাস্টমার লাইভ চ্যাটিং না থাকলে ফ্রিতে এটা ট্রাই করতে পারেন। তবে আমাদের দেশে ম্যাসেঞ্জার লাইভ চ্যাট এর ব্যবহার বেশী। তবে Tawk আপনাকে ম্যাসেঞ্জারের থেকে অনেক বেশী সুবিধা দিবে।

৭। Messenger Live Chat: ওয়েবসাইটে কাস্টমারের সাথে লাইভ চ্যাটের জন্য ফেসবুক ম্যাসেঞ্জার এর ব্যবহার আমাদের দেশে সব থেকে বেশী জনপ্রিয়। কারন এটা ফ্রি। দ্বিতীয়ত এটা ওয়েবসাইটে এড করা থাকলে ম্যাসেজ আপনার ফেসবুক পেইজের ইনবক্সে যায়। তাই অন্য কোন কাস্টমার লাইভ চ্যাটিং সফটওয়ার ব্যবহার করলে আলাদাভাবে সেটা মেইনটেইন করার ঝামেলা নেই।

৮। Canva: ফেসবুক পেজে ছোটখাট পোষ্ট ডিজাইন করার জন্য খুবই কাজের একটা ওয়েবসাইট। আপনি এই ওয়েবসাইট এর মাধ্যমে খুব সহজেই ইমেজ থেকে অ্যানিমেসন বানিয়ে ফেলতে পারবেন।আপনি এই পোষ্টের সাথে যেই ইমেজটি দেখছেন এই ইমেজও আমি ক্যানভার সাহায্য নিয়েই ডিজাইন করেছি।উল্লেখ্য,আমি কিন্তু ডিজাইনার না।

৯। Kapwing: এটি সম্পূর্ণ ফ্রি একটি ভিডিও ইডিটর টুলস।আপনার বিজনেসের ভিডিও এডিটের ছোটখাট যত কাজ আছে আপনি এটা দিয়ে করে ফেলতে পারেবেন সহজেই।মোবাইল দিয়ে একটা প্রোডাক্টের ভিডিও তৈরী করে সেটার উপর টেক্সট অ্যাড করতে চাচ্ছেন? kapWing দিয়ে করে ফেলতে পারবেন সহজেই।

১০। Hellobar: এক গবেশনায় দেখা গেছে যারা অনলাইনে কেনাকাটা করে তাদের অধিকাংশ ক্রেতা ডিসকাউন্ট পেতে পছন্দ করে।আর আপনার সাইট এর ক্রেতার জন্য এটা খুঁজে বের করা খুবই কষ্টকর একটি যাক যে কোন প্রোডাক্টে আপনি ডিসকাউন্ট দিচ্ছেন,আপনার ক্রেতার কষ্ট লাঘব করার জন্য এই টুলস খুবই কাজের একটি টুলস। ডিসকাউন্ট এনাউন্সমেন্ট দেওয়ার আপনি এই টুলস ব্যাবহার করতে পারবেন।হয়ত আপনি আপনার ওয়েবসাইটে একটা প্রোডাক্টে ডিসকাউন্ট দিতে চাচ্ছেন বা দিয়েছেন।এই টুলস ব্যাবহার করে যখন আপনি ডিসকাউন্ট এনাউন্সমেন্ট দিবেন যখনি কেউ সাইটে ঢুকবে তখনি একটা পপআপ দেখতে পাবে।আপনি Hellobar টুলস দিয়ে এই কাজটা খুব সহজেই করে ফেলতে পারেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *