ঢাকা থেকে দিল্লীর উদ্দেশে রওনা দিলেন নরেন্দ্র মোদী

নিউজ ডেস্কঃ ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ও বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন অনুষ্ঠান উপলক্ষে দুই দিনের সফরে বাংলাদেশে এসেছিলেন।সফর শেষে আজকে শনিবার ২৭ মার্চ রাত ৯ টা সময় ভারতের প্রধানমন্ত্রী এবং তার সফর সঙ্গীদের বহনকারী বিমানটি হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ছেড়ে যায়।এসময় পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে বিদায় জানান।

এর আগে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ও বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন অনুষ্ঠান উপলক্ষে গত ২৬ মার্চে দুই দিনের সফরে বাংলাদেশে আসেন।২৬ মার্চ সকাল ১০ টা ৩২ মিনিটে নরেন্দ্র মোদীকে বহনকারী বিমানটি হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ল্যান্ড করে।

বিমান বন্দরে ভারতের প্রধানমন্ত্রী এবং তার সাথে থাকা প্রতিনিধি দলকে অভ্যর্থনা জানান বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।এরপরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নরেন্দ্র মোদীকে নিয়ে মঞ্চে উঠেন এবং তাঁকে লালগালিচা সংবর্ধনা এবং গার্ড অব অনার প্রদান করা হয়।

বিমানবন্দর থেকে তিনি সাভারের জাতীয় স্মৃতিসৌধে যান এবং পুস্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে শহীদদের প্রতি  শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন।এরপরে নরেন্দ্র মোদী ধানমণ্ডি ৩২ নাম্বারে যান এবং জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন।এরপরেই নরেন্দ্র মোদী বিকালে স্কয়ারের অনুষ্ঠানে যোগ দেন।

আজকে শনিবার সকালে তিনি হেলিকপ্টারে সাতক্ষীরার শ্যামনগরের সাড়ে ৪০০ বছরের পুরনো ঐতিহাসিক যশোরেশ্বরী কালীমন্দির পরিদর্শন করেন এই সময় তিনি তার ধর্মের নিয়মানুসারে পূজা-অর্চনা করেন।এই সময় নরেন্দ্র মোদী স্থানীয় হিন্দু সম্প্রদায়ের সাথে মত বিনিময় করেন।

সাতক্ষীরার শ্যামনগর থেকে নরেন্দ্র মোদী টুঙ্গিপাড়া যান।এসময় তিনি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।এরপরে তিনি যান কাশিয়ানীর ওড়াকান্দিতে এবং সেখানে তিনি হরিচাঁদ ঠাকুরের বাড়িতে শ্রী শ্রী হরিচাঁদ ও গুরুচাঁদ ঠাকুরের মন্দিরে পূজা-অর্চনা করেন এবং পূজা-অর্চনা শেষে মতুয়া প্রতিনিধিদের সাথে মতবিনিময় করেন।

এরপর শনিবার বিকাল ৫ টায় তিনি বাংলাদেশ সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কার্যালয়ে আসেন সেখানে তিনি ঢাকা এবং দিল্লির মধ্য ৫ টি সমঝোতা স্মারক সই সম্পন্ন করেন এবং এই সময় তিনি ভারতের পক্ষ থেকে ১০৯ টি এ্যাম্বুলেন্স এবং ১২ লাখ করোনা ভাইরাসের টিকা উপহার সরূপ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে হস্তান্তর করেন।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে ঢাকা ত্যাগ করার আগে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন।

You might also like
Leave A Reply

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশ করা হবে না

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

Privacy & Cookies Policy