মোবাইল চার্জ দেওয়া নিয়ে আমাদের কয়েকটি ভুল ধারনা

মোবাইল ফোন কি?এটা আর নতুন করে কিছু বলার নেই,কারন আপনি হয়তবা এই লেখাটাও মোবাইল ব্যাবহার করেই পড়ছেন।বর্তমান সময়ে মোবাইল ব্যাবহার করে না এমন মানুষ খুঁজে বের করা একবারেই সম্ভব একটি কাজ।আজকে আমরা এই লেখায় জানব আমাদের হাতে থাকা মোবাইল ফোন চার্জ দেওয়ার বিষয়ে আমাদের ভিতরে যে ভুল ধারনা গুলো কাজ করে সেই সম্পর্কে।তাহলে চলুন শুরু করা যাকঃ

১/  অনেকেই বলে থাকেন যে মোবাইলের চার্জ ১০০% এর কম না হলে কখনও মোবাইল চার্জে দেওয়া উচিত নয়।এটি সম্পূর্ণ একটি ভুল ধারনা।লিথিয়ান-আয়ন ব্যাটারি খুবই ক্ষমতাসম্পন্ন হয়ে থাকে,সুতরাং সম্পূর্ণ চার্জ শেষ না হলে চার্জ দেওয়া যাবে না এটা সম্পূর্ণ একটি ভুল ধারনা।আপনার যখনই মনে হবে আপনার মোবাইলে চার্জ দেওয়া প্রয়োজন তখনই চার্জ দিয়ে নিন।

২/ অনেকেই বলে থাকেন যে চার্জ হবার সময় মোবাইল ব্যাবহার করা উচিত নয়।এতে করে মোবাইল ব্লাসট হতে পারে।এটিও একটু গুজব মাত্র।আপনার ফোন যদি ফোনের অরজিনাল চার্জার দিয়ে চার্জে লাগান থাকে তাহলে আপনি আপনার মোবাইল চার্জে দিয়ে ও ব্যাবহার করতে পারেন।তবে এই ক্ষেত্রে দুইটি টিপস হলঃ চার্জে দিয়ে আপনি ফোন ভেজা হাতে ধরবেন না আর আপনি যদি ফোনের অরজিনাল চার্জার ব্যাবহার না করে থাকেন তাহলে মোবাইল চার্জ হবার সময় আপনি আপনার মোবাইল ব্যাবহার করবেন না।

৩/ আরও একটি ভুলধারনা হল যে,প্রতি সপ্তাহে অন্তত একদিন মোবাইল বন্ধ রাখা উচিত।অনেকেই মনে করেন এতে করে মোবাইলের ব্যাটারি এর পারফরমান্স ভালো থাকে।কিন্তু আমাদের টিপস হল,আপনি যদি আপনার মোবাইল এবং মোবাইল এর ব্যাটারি এর পারফরমান্স ভালো করতে চান তাহলে প্রতি সপ্তাহে অন্তত একবার আপনার মোবাইল ফোন রিস্টার্ট করে নিন।

৪/  অনেকেই বলে থাকেন সব চার্জার একই!কথাটা একেবারেই সত্ত্ব নয়।কারন আসল আর নকল জিনিসে অবশ্যই পার্থক্য আছে।আসল মোবাইল দ্রুত মোবাইল চার্জ এর পাসাপাশি অতিরিক্ত বিদ্যুৎ কন্ট্রোল করতে পারে।আর নকল চার্জার আপনার মোবাইল ধীরে চার্জ করে এবং বিদ্যুৎ কন্ট্রোল করতে পারে না।এবং নকল চার্জারে ইউজার এর ক্ষতির সম্ভবনাই বেশী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *