আগামীকাল থেকে গণপরিবহনে অর্ধেক যাত্রী,গুনতে হবে ৬০% বাড়তি ভাড়া

নিউজ ডেস্কঃ করোনার সংক্রমন রোধে শারীরিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে আগামীকাল থেকে গণ-পরিবহনের অর্ধেক যাত্রী বহন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।আর এই সিদ্ধান্তের কারনে যাত্রীদের ৬০% অতিরিক্ত ভারা গুনতে হবে আগামীকাল বুধবার থেকে।আগামীকাল ৩১ মার্চ ২০২১ তারিখ থেকে শুরু হয়ে তা আগামী দুই সপ্তাহ কার্যকর থাকবে।আজকে মঙ্গলবার বাংলাদেশ সরকারের সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের তার সরকারি বাসভবনে সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে এ সিদ্ধান্তের কথা জানান।

এসময় সেতুমন্ত্রী বলেন, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ বেড়ে যাবার কারনে আগামীকাল বুধবার থেকে গণ-পরিবহনের অর্ধেক যাত্রী বহন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার আর এই সিদ্ধান্তের কারনে যাত্রীদের ৬০% অতিরিক্ত ভারা প্রদান করতে হবে।তিনি আরও জানান, আগামীকাল থেকে শুরু হয়ে এই সিদ্ধান্ত আগামী দুই সপ্তাহ বহাল থাকবে এবং পরিস্থিথি স্বাভাবিক হলে ভারা আগের অবস্থায় ফিরে আসবে।

এর আগে গত সোমবার গণ-পরিবহনে ধারন ক্ষমতার অর্ধেক যাত্রী বহন করার জন্য একটি নির্দেশনা জারী করে।প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব ড. আহমদ কায়কাউস স্বাক্ষরিত প্রজ্ঞাপনে করোনাভাইরাস মোকাবিলায় সর্বমোট ১৮ টি নির্দেশনা জারি করা হয়।সেই নির্দেশনায় গণ-পরিবহনে ধারন ক্ষমতার অর্ধেক যাত্রী বহন করা বিষয়ক নির্দেশনাও ছিল।

এই নির্দেশনা জারীর পর ঢাকা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক খন্দকার এনায়েত উল্যাহ আমাদের এই প্রতিনিধিকে বলেন, সরকারের এই সিদ্ধান্তের কথা জানতে পেরেছি।তবে এই বিষয় নিয়ে বিআরটিএ এবং এর সাথে সংশ্লিষ্ট কারও সাথে কোন কথা হয়নি।এমন সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করতে হলে সরকারকে অবশ্যই গত বছরের মতও বর্তমানের ভারার চাইতে ৬০% ভারা বাড়াতে হবে।

গত সোমবারের জারী হওয়া ঐ নির্দেশনায় আরও বলা হয়েছে যেসব এলাকা করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের জন্য উচ্চ ঝুঁকিপূর্ণ এলাকা হিসাবে চিহ্নিত সেসব এলাকায় যান চলাচল সীমিত করতে হবে।যদি যান চলাচল বন্ধ রাখার প্রয়োজন হয় তাও রাখতে হবে।এবং সদ্য বিদেশ থেকে আসা যাত্রীদের তাদের নিজ খরচে ১৪ দিন পর্যন্ত প্রাতিষ্ঠানিকভাবে আবাসিক হোটেলে কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করতে হবে।

গত বছর করোনা ভাইরাস মহামারী আকার ধারন করলে ২০২০ সালের ৩১ মে থেকে গণ-পরিবহনের অর্ধেক যাত্রী বহন করার জন্য নির্দেশনা জারী করে সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ।সেই সময় বাস মালিকদের অনুরধে মূল ভারার সাথে ৬০% ভারা বাড়ায় সরকার।এই সিদ্ধান্তের আগে গত বছর দীর্ঘদিন গণ-পরিবহন সম্পূর্ণ রুপে বন্ধ রাখা হয়েছিল।এবং করোনা সংক্রমণ কমে আসার কারনে গত বছরের ১ সেপ্টেম্বর থেকে আবারও গণ-পরিবহন চলাচল স্বাভাবিক করে দেওয়া হয়েছিল।

You might also like
Leave A Reply

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশ করা হবে না

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

Privacy & Cookies Policy