ফেসবুক অ্যাডে স্প্লিট টেস্ট কি? কিভাবে কাজ করে? জেনে নিন।

ফেসবুকে অ্যাড রান করার ব্যাপারে এক এক জনের এক এক রকম সাজেশনে আপনি যদি কনফিউশনে পড়ে যান তাহলে এই পোস্টটি আপনার জন্য।হয়ত অনেকেই আপনাকে বলেছে বড় অডিয়েন্স ভালো আবার কেউ হয়ত আপনাকে বলছে ছোট অডিয়েন্স ভালো আবার কেউ হয়ত বলেছে কাস্টম অডিয়েন্স ভালো।এখন হয়ত আপনি সিধান্ত নিয়েছেন যে আপনি কাস্টম অডিয়েন্স নিয়ে কাজ করবেন।আর যখন আপনি কাস্টম অডিয়েন্স নিয়ে কাজ করতে যাবেন তখন এই স্প্লিট টেস্টের আসলেই কোন বিকল্প আপনি খুঁজে পাবেন না।আপনাকে বিভিন্নভাবে চেষ্টা করে দেখতে হবে যে কোন ধরনের অডিয়েন্স আপনার প্রোডাক্ট/সার্ভিস এর সাথে মানান সই।আপনাকে চেক করে দেখতে হবে কোন ধরনের ছবি অথবা পোস্ট আপনার অডিয়েন্স ভালোভাবে রেস্পন্স করে এবং দেখতে হবে ছোট নাকি বড় অডিয়েন্স আপনার অ্যাড কে সর্বাধিক সাড়া দেয়।

স্প্লিট টেস্ট কি?(What Is a Split Test?):

স্প্লিট টেস্ট এমন একটি পদ্ধতি যে পদ্ধতি অনুসরন করে একজন অ্যাডভারটাইজার একটি সিঙ্গেল অ্যাড এর মধ্যই একাধিক অ্যাড সেট তৈরি করতে পারে।এই পদ্ধতিকে আমরা অবশ্য টার্গেটিং বলেই চিনে থাকি এবং এই পদ্ধতি অনুসরন করে আমরা একাধিন ইমেজ সেটও তৈরি করতে পারি।নিচের ছবিটি ভালোভাবে দেখলে বিষয়টি আরও পরিস্কার হবে।

Split Test Example.jpg
Split Test Example,Image Credit: facebook.com

স্প্লিট টেস্ট এর সুবিধা কি?(What are The Benefits of Split Test?):

আপনি যখন একটা অ্যাডকে স্প্লিট টেস্ট করে থাকেন তখন আপনার লক্ষ্য থাকে দুইরকম ভাবে আপনার অডিয়েন্স কে  টার্গেট করে একটা অ্যাডই আলাদা আলাদা অডিয়েন্সের কাছে পৌঁছানো, এবং ২৪ ঘন্টা অথবা ৪৮ ঘন্টা পর পারফমান্স মনিটর করে দেখা যে কোন অ্যাড সেট টা বেশি ভালো পারফর্ম করছে, সে অনুযায়ী আপানকে একটি সিদ্ধান্ত নিতে হবে, যে একাধিক অ্যাড সেটই চলবে নাকি কোন অ্যাড সেট বন্ধ করে দিতে হবে।যেমনঃ আপনি ২ টা অ্যাড সেট তৈরি করলেন এবং এর একটি তে বয়স দিলেন ১৬-৪০ বছর আর একটিতে দিলেন ১৮-৫০ বছর এবং একটিতে টার্গেট দিলেন পরু বাংলাদেশ এবং অপরটিতে টার্গেট দিলেন শুধু ঢাকা জেলা।এখন অ্যাড সেট তৈরি ক০রা হয়ে গেলে আপনাকে দুইটা অ্যাড সেটই একসাথে রান করাতে হবে এবং ২৪-৪৮ ঘণ্টা অপেক্ষা করতে হবে পারফরমান্স চেক করার জন্য।এখন ২৪ অথবা ৪৮ ঘণ্টা পর যে অ্যাড সেট এর ফলাফল ভালো পাবেন সেই অ্যাড সেট টি চালু রাখবেন এবং অপরটি অফ করে দিবেন।যদি দেখেন আপনার উভয় অ্যাড সেট এর রেজাল্ট ভালো তাহলে আপনি চাইলে দুইটা অ্যাড সেট রান রাখতে পারেন।আমি এখানে দুইটা অ্যাড সেট এর কথা বললাম আপনি চাইলে আরও বেশী অ্যাড সেট তৈরি করে টেস্ট করতে পারেন।

What are The Benefits of Split Test.jpg
What are The Benefits of Split Test,Image Credit: stayworkplay.org

মাল্টিপল ইমেজ সেটের ব্যাপারটা কি?(What About Multiple Image Sets?):

এখানে অডিয়েন্স কে টার্গেট করার পাশাপাশি আপনি বিভিন্ন রকম ছবি ব্যাবহার করে (অবশ্যই আপনার বিজনেস রিলেটেড ইমেজ ব্যাবহার করবেন) আপনি অ্যাড সেট টেস্ট করে দেখতে পারবেন।আপনি চাইলে এখানে বিভিন্ন পোস্টও সংযুক্ত করতে পারবেন।

What About Multiple Image Sets.jpg
What About Multiple Image Sets,Image Credit: hootsuite.com

যেমন মনে করুন,আপনার যে কোন একটি প্রোডাক্ট এর উপর ৩ টা পোস্ট এবং ৩ টা ছবি আছে এবং প্রতিটি পোস্ট এবং ছবি আলাদা,এখন আপনি এই ৩ টা পোস্ট এবং ৩ টা ছবি দিয়ে একটি অ্যাড সেট তৈরি করে টেস্ট করতে পারেন।এখন এই পোস্ট এবং ছবির ভেতর যে পোস্ট এবং ছবি বেশী রেস্পন্স পাবে সেইগুলা রান রাখতে হবে এবং বাঁকি গুলো বাদ দিতে হবে।তথ্য সুত্রঃ ইন্টারনেট।

আজকের এই লেখা কেমন লাগল জানাতে ভুলবেন না।আপনাদের সাড়া পেলে লেখালেখি করতে ভালো লাগে।

Leave a Comment