এখন থেকে ইউটিউব ইনকামের ২৪% কেটে নিবে গুগল

টেক ডেস্কঃ এখন থেকে ইউটিউব ইনকামের ২৪% কেটে নিবে গুগল।যে ইউটিউবাররা আমেরিকার বাহিরে থাকেন অর্থাৎ, যারা আমেরিকা বাদে অন্য দেশ থেকে ইউটিউব এর মাধ্যমে আয় করে থাকেন তাদের জন্য নতুন এই নিয়ম নিয়ে আসল জনপ্রিয় ভিডিও শেয়ারইং ওয়েবসাইট ইউটিউব।প্লিজ হতাশ হবেন না পুল লেখা মনোযোগ সহকারে পড়ুন হয়ত আশার আলো অপেক্ষা করছে আপনার জন্য।

মনে করুন আপনি প্রতি মাসে ইউটিউব থেকে ১০০০ ডলার ইনকাম করেন।এখন এই ১ হাজার ডলার এর মধ্য থেকে আপনি হয়ত আমেরিকান ভিউ থেকে ১০০ ডলার ইনকাম করছেন।তাহলে আপনাকে এই ১০০ ডলার এর হিসাবে ৩০ ডলার ইউটিউবকে দিতে হবে।তবে এই ক্ষেত্রে একটি শর্ত আছে, আপনি যদি আপনার দেশে দেওয়া ট্যাক্স ইনফর্মেশন ইউটিউব কে সরবরাহ করেন তবেই ১০০ ডলার থেকে ৩০ ডলার দিতে হবে ইউটিউবকে।

তবে যারা ইন্ডিয়া থেকে ইউটিউব এর মাধ্যমে আয় করেন তাঁরা তাদের দেশের ট্যাক্স ইনফর্মেশন ইউটিউবকে সরবরাহ করলে মত আয়ের ১৫% কেটে নেওয়া হবে।এখন প্রশ্ন হল এখানে কেন ২৪% না কেটে ১৫% কাটা হবে?ইন্ডিয়ার সাথে আমেরিকার যে ট্যাক্স রিলেশনশিপ থাকে সে হিসেবে এ ট্যাক্স কাটা হবে।শুধু ইন্ডিয়া নয় আমেরিকার সাথে যে দেশগুলোর ট্যাক্স রিলেশনশিপ আছে তাদের জন্যও কেটে নেওয়ার পরিমান ১৫%।আর আপনি যদি ইউটিউবকে কোন প্রকার ট্যাক্স ইনফর্মেশন না দেন তাহলে ইউটিউব আপনার মোট আয়ের ২৪% কেটে নিবে।

আর আপনার ইউটিউব চ্যানেলে যদি বাংলাদেশ এবং ইন্ডিয়ান ভিউ থাকে তাহলে আপনি যদি আপনার দেশের ট্যাক্স ইনফর্মেশন ইউটিউবকে সরবরাহ করেন তাহলে আপনাকে কোন টাকা ইউটিউবকে দিতে হবে না।এর জন্য অবশ্যই আপনাকে ট্যাক্স ইনফর্মেশন সাবমিট করতে হবে।

একটা বিষয় এখানে পরিস্কার যে এখন থেকে আপনাকে অবশ্যই সরকারকে ট্যাক্স দিতে হবে।কারন ট্যাক্স না দিলে আপনি ট্যাক্স ইনফর্মেশন পাবেন না আর ট্যাক্স ইনফর্মেশন না পেলে ইউটিউবকে ট্যাক্স ইনফর্মেশন সরবরাহ করতে পারবেন না।

এখন আমাদের মাঝে অনেকেই আছেন যারা বাংলাদেশে ট্যাক্স দেন না,তাদের অবশ্যই এখন থেকে ট্যাক্স দিতে হবে এবং সেই ট্যাক্স ইনফর্মেশন আগামী ৩১ মে ২০২১ তারিখের মধ্য ইউটিউবকে সরবরাহ করতে হবে।

এখন আপনি হয়ত ভাবছেন তাহলে আমেরিকা থেকে যারা ইউটিউব এর মাধ্যমে আয় করছে অর্থাৎ যারা আমেরিকার ভিডিও ক্রিয়েটর তাদের জন্য অনেক ভালো।তাহলে আপনি ভুল ধারনা নিয়ে বসে আছেন।কারন তাঁরা ইতিমধ্যে ইউটিউবকে ট্যাক্স ইনফর্মেশন সরবরাহ করেছে।

সকল অ্যাডসেন্সে গুগল কয়েকদিনের মধ্যই ট্যাক্স ফরম পাঠাবে।সেখানে আপনাকে ট্যাক্স ইনফর্মেশন সরবরাহ করতে হবে।এখন প্রশ্ন হল ইউটিউব কি ইচ্ছা করেই এই নিয়ম নিয়ে আসল নাকি অন্য কোন কারনে?

না গুগল বা ইউটিউব ইচ্ছা করে এই নিয়ম আনেনি।আমেরিকার ট্যাক্স রুলস চ্যাপ্টার-৩ অনুসারে কেউ যদি আমেরিকার ভিউ থেকে আয় করে তাহলে অবশ্যই তাকে আমেরিকার সরকারকে ট্যাক্স দিতে হবে।সুতরাং বলা যায়, গুগল ইচ্ছাকৃত ভাবে এই নিয়ম নিয়ে আসেনি এবং আপনার আয় থেকে কেটে নেওয়া আয় গুগল নিজের কাছে রাখবে না।আপনার বা আমার আয় থেকে ট্যাক্স কেটে নিয়ে সেই টাকা গুগল আমেরিয়াক্র রাজস্ব বোর্ডে জমা দিবে।

You might also like
Leave A Reply

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশ করা হবে না

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

Privacy & Cookies Policy