ইলেকট্রিক পোল কি? পোল সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা

হ্যালো বন্ধুরা, আশাকরি সবাই ভালই আছেন। আজকে আমি আপনাদের জন্যে প্রতিবারের মতো একটি আর্টিকেল নিয়ে হাজির হলাম। আমার আজকের আর্টিকেল হলো ইলেকট্রিক্যাল নিয়ে। ইলেকট্রিক্যাল নিয়ে আমার প্রায় অনেক আর্টিকেল লেখা হয়ে গেছে। হইতো সেই আর্টিকেলগুলি আপনারা পরে নিয়েছেন। আর যদি না পড়ে থাকেন তাওলে আমার সেই আর্টিকেলগুলি অব্যশই পরে নিবেন। তো আর কথা না বাড়িতে আমি আর্টিকেল এর কথায় চলে আসি। আজকে আমার আর্টিকেল হলো ইলেকট্রিক্যাল পোল নিয়ে। আসাকরি আমার এই আজকের আর্টিকেল আপনাদের অনেক কাজে লাগবে।

তো আমরা সবার আগে জেনে নেই যে এই ইলেকট্রিক পোল কিঃ ইলেক্ট্রিক্যাল পোল হলো যে লম্বা দন্ডের সাহায্যে। ওভারহেড লাইনের কন্ডাক্টর ইনসুলেটর এবং ক্রশ আর্ম প্রভৃতি মাথার উপরে তুলে ধরা হয়ে থাকে। তাকেই পোল বলে থাকে। আশাকরি আপনারা বুজতে পেরেছেন। এখন আমরা জানব যে পোল বসানোর কার্য পদ্ধতি গুলি।

পোলগুলি নির্দিষ্ট জায়গায় স্থাপনের জন্যে কিছু কিছু ধাপ অনুসরণ করতে হয় যেমন। প্রথমে পোলের গর্ত খনন করা লাগবে । তারপর পোল তোলা এবং পোল বসানো।পোলের গর্ত খনন করতে সাধারণত উল্লেখিত সব ধরনের পোলের গর্ত লেভেলিং, মাটি ভরাটের জন্যে শাবল, গাইতি, বেলচা , কোদাল, ক্যাটারপিলার, ট্রাক্টর, মাটি খরার অগার ইত্যাদি ব্যবহার করা হয়ে থাকে। আর্থ আগার এক ধরনের মাটি খোরার যন্ত্র। যা ইঞ্জিনের সাহায্যে চালিত হয়। এবং কোনো ট্রাক, ট্রাক্টর এর মধ্যে বসানো থাকে। বালিতে বা জলাশয় যায়গায় গরত করার জন্য তারবিহীন বর ড্রাম ব্যবহার করা সুবিধাজনক হয়ে থাকে। গর্ত করার সাথগে সাথে ড্রামটি মাটিতে ডুকে যাবে। ফলে গর্তের চারদিকে বালি বা পানি দিয়ে গর্তে পড়তে পারবে না।

গর্তের ব্যাস পোলের সাইজের উপড় নির্ভর করে থাকে। সাধারন ভাবে গর্তের ব্যাস পোলের ব্যাসের চাইতেও কম করে হলেও ১৫ সেঃ মিঃ এর মতো বড় হওয়ার দরকার পরবে। গর্তের গভীরতা মুটামুটি কম করে হলেও পোলের দৈর্ঘ্যের ৫ এর ১ ভাগ বা ৬ এর এক ভাগ হয়ে থাকে।

এখন আবার ডেরিক পোল নিয়ে কিছু বিস্তারিত আলচনা করা যাক। ডেরিক পোল লাইনের পোলের চাইতে অনেক ছোট ও হাল্কা হয়ে থাকে। এবং লাইনের পোলের মাথায় পাঁচটি দড়ি বাঁধতে হয়। ও দড়িগুলি খুঁটির সংগে ভালোভাবে আটকাতে হয়। এবং দড়ীগুলি পোল তুলার সময় প্রয়জোন মতো ঢিল ও টানা দিতে হয় যাতে পোল কোনো পাশে হেলে না যায়। ৫ নং দড়ি ডেরিক পোলের কপিকল ঐ দিকের ডেরিক পোল থেকে ৪০-৪৫ ফুট দূরেপুল্লী ব্লাকের ফ্রেমের সঙ্গে বাঁধা হয়। এবার পোলের ব্লাকের রশি টান্তে আরম্ভ করলে ৫নং রশিতে টান পড়ে এবং পোল্টি আস্তে আস্তে খারা হয়ে যায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *