ভিপিএন কিভাবে কাজ করে? ভিপিএন সম্পর্কিত সকল কথা!

আসসালামু আলাইকুম। কেমন আছেন আপনারা? আশা করি ভালই আছেন। অনেকদিন পর আমি আপনাদের মাঝে একটা আর্টিকেলে হাজির হলাম। অনেক ব্যস্ত থাকার কারণে আমি প্রতিনিয়ত ও আপনাদের মাঝে আর্টিকেল লিখতে আসতে পারিনা। প্রতিদিন আপনাদের মাঝে আসার জন্য ইচ্ছে থাকলেও তা হয়তো কোন ব্যস্ততার জন্য হচ্ছে না। তবে আজকে একটু ফ্রি থাকার কারণে আমি আপনাদের মাঝে সুন্দর একটি আর্টিকেল নিয়ে আসলাম। তো আমাকে অনেকে রিকুয়েস্ট করেছিল এ বিষয়ে একটা আর্টিকেল লিখতে। সেটি হচ্ছে ভিপিএন নিয়ে। আমরা ইতিমধ্যেই অনেকেই হয়তো ভিপিএন সম্পর্কে একটি হলেও জানি। তবে আজ আমরা একটু নয় এই ভিপিএন সম্পর্কে পুরোপুরি জানব।

তবে সবার আগে আমাদের জানা উচিত যে এই ভিপিএন কি?

ভিপিএন হচ্ছে ভার্চুয়াল প্রাইভেট নেটওয়ার্ক। সাধারণত যারা কারণে এই ভিপিএন ব্যবহার করা হয় তার একটি তালিকা বন্ধু করবো আজকের আর্টিকেল এর মধ্যে। তবে সে থাকে এই বিষয় নিয়ে আর কিছু তথ্য জানা যাক। আমরা ব্যবহার করে থাকি। আমাদের ইন্টারনেট সংযোগ কে এনক্রিপ্ট করার জন্য। বা ইন্টারনেটের পাবলিক নেটওয়ার্ক থেকে নিজেকে সিকিউর রাখার জন্য বা প্রাইভেট রাখার জন্য। আপনার তখনই ভিপিএন ব্যবহার করার প্রয়োজন পড়ে যখন আপনি কোন অসৎ ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডার এর কাছ থেকে সার্ভিস পেয়ে থাকেন।

বাড়ি আপনার অসৎ ইন্টারনেট প্রভাইডার ছাড়া আর অন্য কোন ইন্টারনেট সিস্টেম ইউজ করার কোন উপায় থাকবেনা। আপনার তখনই ভিপিএন ব্যবহার করার প্রয়োজন পড়বে। তখন আপনি যদি ভিপিএন ব্যবহার করেন। আপনার ইন্টারনেটের প্রভাইডার এর কাছ থেকে আলাদা হয়ে। আপনার বিপিএন সার্ভারের সাথে সংযুক্ত হবে। এর মাধ্যমে আপনার ইন্টারনেট প্রোভাইডার এর আইডি লুকিয়ে। বিপিএন নিজ থেকে আরেকটি আইপি এড্রেস তৈরি করবে। যার মাধ্যমে আপনার অরিজিনাল আইপি এড্রেস কেউ জানতে পারবে না।

তাছাড়া বাংলাদেশ থেকে যদি কোন ওয়েবসাইট বন্ধ করে দেওয়া হয়। এটা কোন কোন দেশ থেকে অ্যাক্সেস করা যায়। তাহলে আপনি ভিপিএন ব্যবহার করে সেই দেশের লোকেশন থেকে আপনি ওয়েবসাইট অ্যাক্সেস করতে পারবেন। ভিপিএন ব্যবহার করার পর আপনি ইন্টারনেটের সকল ওয়েবসাইট ভিজিট করতে পারবেন। আপনার জন্য সব উন্মুক্ত হয়ে যাবে।

এবং ভিপিএন ব্যবহার করেন আপনি আপনার ইন্টারনেট সংযোগটি যখন-তখন এনক্রিপ্ট করতে পারবেন। যার কারণে আপনি ইন্টারনেট থেকে সম্পন্ন নিরাপদ থাকতে পারবেন। হ্যাকার চাইলেও আপনার কোন ক্ষতি করতে পারবেনা। বা কোন তথ্য চুরি করে নিতে পারবে না। অতএব আপনি ইন্টারনেট সংযোগ কে এনক্রিপ্ট করার পর ইন্টারনেট থেকে সম্পূর্ণ নিরাপদ।

অবরুদ্ধ ওয়েবসাইট এক্সেস করতে পারবেন আপনি এক নিমিষেই। শুধু আপনি অন্য কোন দেশের ভিপিএন সার্ভার এর মাধ্যমে কানেক্ট করবেন। ব্যাস কাজ শেষ। তারপর থেকে আপনার দেশের থেকে কোন ওয়েবসাইট বন্ধ থাকলে আপনি তা ভিজিট করতে পারবেন। কোন কাজ থাকলে সেটা করা সম্ভব হবে।

You might also like
Leave A Reply

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশ করা হবে না

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

Privacy & Cookies Policy