হেফাজত নেতা মামুনুল হককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ

নিউজ ডেস্কঃ বাংলাদেশ হেফাজত ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব ও ঢাকা মহানগরীর সাধারণ সম্পাদক মামুনুল হককে গ্রেফতার করেছে ডিবি পুলিশ।আজকে রবিবার ১৮ এপ্রিল দুপুরে ঢাকার মোহাম্মদপুরের জামিয়া রাহমানিয়া মাদরাসা থেকে তাকে গ্রেফতার করে গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) যুগ্ম কমিশনার মাহবুব আলম মিডিয়াকে গ্রেফতারের বিষয়ে নিশ্চিত করেছে।তিনি বলেন, গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) একাধিক টিমের যৌথ অভিজানে হেয়াফজতের এই নেতাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

গত ২৬ মার্চ ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বাংলাদেশে আসা নিয়ে বিরোধিতা করে হেফাজত ইসলাম।সেদিন তারা বিক্ষোভ করে।প্রথমে হেফাজতে ইসলাম ঢাকার জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমের সামনে বিক্ষব এবং সহিংসতা তৈরি করে এবং এর জেরে হাটহাজারী ও ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় প্রাণঘাতী সংঘাত হয়।এবং এই কারনে গত ২৮ মার্চ সারাদেশে হরতাল ডাকে হেফাজত ইসলাম।আর এই হরতালকে ঘিরে সারাদেশে নেতিবাচক পরিবেশের সৃষ্টি হয়।বিশেষ করে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়।

এরপরে গত ৩ এপ্রিল নারায়াঙ্গঞ্জের একটি রিসোর্টে মামুনুল হককে ঘেরাও করার ঘটনা ঘটে।এই ঘটনার ছড়িয়ে পড়ার একটি ভিডিওতে বলতে শুনা যায় হেফাজতের এই নেতা এক নারী সহ আটক হয়েছেন।যদিও মামুনুল হক সেই নারীকে নিজের স্ত্রী বলে দাবি করেন।সেদিন সন্ধ্যায় রিসোর্ট থেকে মামুনুল হককে ছিনিয়ে স্থানীয় একটি মসজিদে নিয়ে যায় হেফাজতের কর্মীরা।

সেসময় হেফাজতের কর্মীরা সেই রিসোর্টে এবং স্থানীয় আওয়ামীলীগের কার্যালয়,বাড়িঘরে অগ্নি সংযোগ করে এবং মহাসড়ক অবরোধ করে আগুন জ্বালায়।

সেদিন পুলিশের উপরে হামলা এবং রিসোর্টে ভাংচুরের ঘটনায় হেফাজত নেতা মামুনুল হক সহ ৮৩ জনের নামে মামালা দায়ের হয় এবং সেই মামলায় আরও অজ্ঞাতনামা ৫০০-৬০০ জনকে আসামি করা হয়।

এই মামালায় সরকারী কাজে বাদা প্রদান,রিসোর্টে ভাংচুর এবং পুলিশের উপরে হামলার অভিযোগ এনে ৪১ জনের নাম উল্লেখ করা হয়েছে এবং আরও অজ্ঞাতনামা প্রায় ৩০০ জনকে আসামি করা হয়েছে।এবং এই মামলার প্রধান আসামি করা হয়েছে হেফাজতের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হককে।

এছারা যানবাহনে অগ্নিসংযোগ এবং ককটেল বিস্ফোরণের অভিযোগ এনে আরেকটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।এই মামলায় ৪২ জনের নাম উল্লেখ করা হয়েছে এবং অজ্ঞাতনামা আরও প্রায় ২৫০-৩০০ জনকে আসামি করা হয়েছে।এই মামালায় হেফাজতের নেতা সহ জাতীয় পার্টি ও বিএনপি নেতাকর্মীদের নামও রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.