১০৮ মেগাপিক্সেল এর ক্যামেরা ইতিমধ্যে বাজারে লঞ্চ হতে চলেছে

ভিউয়ার্স প্রতিবারের মতো আজকেও আপনাকে স্বাগতম। প্রতিনিয়ত আমি এ ব্লগ এ ক্যামেরা রিভিউ এবং বিভিন্ন ক্যামেরার ব্যবহার এবং ক্যামেরার ইনফরমেশন নিয়ে হাজির হয়েছি। আজকে আমি আর একটি নতুন আর্টিকেল নিয়ে আপনাদের মাঝে হাজির হলাম। সেটি হচ্ছে ১০৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা নিয়ে। মানে কি রকম হতে পারে ১০৮ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা। সম্প্রতি এ বছর মোটামুটি ২৪ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা থেকে। ৪০ মেগাপিক্সেল ৪৮ মেগাপিক্সেলের তারপর শুনলাম ৬৮ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা। বর্তমান সময়ে ৪৮ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা র মোবাইল পর্যন্ত বাজারে পাওয়া যাচ্ছে। আবার শুনতেছি যে ১০৮ মেগাপিক্সেল এর ক্যামেরা ইতিমধ্যে বাজারে লঞ্চ হতে চলেছে। তাই বন্ধুরা আমি আজকের এই আর্টিকেলে ১০৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা কেমন হবে এবং এই ১০৮ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা ফোন কি কেনা ঠিক হবে? না কি ঠিক হবে না? সেটা নিয়ে আজকে আমি বিস্তারিত আলোচনা করব। তাই আপনারা শুরু থেকে আমার আর্টিকেলটি শেষ পর্যন্ত পড়তে থাকুন।

সম্প্রতি ১০৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা ওয়ালা ফোন বাজারে না পাওয়া গেলেও বেশ কিছুদিনের মধ্যেই আমাদের বাজারে পাওয়া যাবে। তবে তার আগে এটা নিয়ে কিছু বিস্তারিত আলোচনা করা যাক। আসলে ক্যামেরা এমন একটি জিনিস। মনে করেন একটি ক্যামেরাতে সেন্সর লাগানো থাকলো ১২ মেগাপিক্সেল এর সেখানে ক্যামেরা যদি ৪৮ মেগাপিক্সেলের লাগানো থাকে। তাহলে আপনি কিভাবে ৪৮ মেগাপিক্সেল সুবিধাগুলো পাবেন? অবশ্যই আপনি ৪৮ মেগাপিক্সেলের সুবিধা আপনি পাবেন না। আপনার ফোনে 38 মোবাইল ক্যামেরা শো করা থাকলেও সেখানে পুরোপুরি আপনি বার আমাকে বলেছিলেন ক্যামেরা শুট করতে পারবেন। আপনি একটি জিনিস চেক করুন অথবা আপনার যদি ডিভাইস সংগ্রহ করা সম্ভব না হয়। তাহলে আপনি বিভিন্ন রিভিউ দেখুন।

স্যামসাং গ্যালাক্সি এস সিরিজের ফোন গুলোতে স্যামসাং ১২ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা দিয়ে রেখেছে। তবে ডিভাইসটির মূল্য অনেক হয়েছে। আবার আপনি লক্ষ্য করে দেখুন শাওমি মিনিমাম ১২ থেকে ১৫ হাজার টাকার মধ্যে ৪৮ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা অফার করেছে। তবে সে ফোনে দেখা গেছে যে শাওমি ১২ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা সেনসর ব্যবহার করেছে। এবং ক্যামেরা ব্যবহার করা হয়েছে ৪৮ মেগাপিক্সেল। আবার নরমালি ক্যামেরার দিয়ে ছবি হয়েছে ১২ মেগাপিক্সেলের দিয়ে। সেখানে যদি ৪৮ মেগাপিক্সেল এর ক্যামেরা দিয়ে ছবি তোলা যায় তাহলে আবার প্রো মডে যেতে হয়েছে।

তবে কিছু কিছু কম বাজেট ফোনে দেখা গেছে যে এরকম সমস্যা। অনেকে কৌতুহলবশত বাজেট ফোনে ৪৮ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা পেয়ে অনেকে ফোন কিনে নিয়েছে। তারপরে দেখা গেছে যে সেখানে ১২ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা সেন্সর ব্যবহার করা হয়েছে। এবং ক্যামেরা মধ্যে অনেক ত্রুটি পাওয়া গেছে। তাই আমি বলব বর্তমানের ফোনগুলোতে ১০৮ মেগাপিক্সেল এর ক্যামেরা কিনার জন্য যারা কৌতূহলবশত হয়ে আছেন। তারা অবশ্যই ফোনটি রিলিজ হওয়ার পরে ভালোভাবে একটু রিপোর্ট চেক করে ফোন কিনে নিবেন।

Leave a Comment