আপনার ল্যাপটপের কিবোর্ড কাজ করছে না? এখনই ঠিক করে নিন

হ্যালো ভিউয়ার্স, কেমন আছেন আপনারা সবাই ভাল আছেন। প্রতিবারের মত আমিও আপনাদের মাঝে আজকেও আর্টিকেলে হাজির হলাম। আমি আজকের আর্টিকেলটি লিপিবদ্ধ করেছি ল্যাপটপের একটি বেসিক সমস্যা নিয়ে। যেহেতু এই জিনিসটা নিয়ে অনেক আগে আমার আর্টিকেলটি লেখার ইচ্ছা ছিল। হয়তো আজকে আমি এই আর্টিকেলটি নিয়ে লিখতে বসলাম। যাই হোক আজকে আমি কথা বলব কম্পিউটারের বা ল্যাপটপ কম্পিউটারের কীবোর্ডের অনেক ক্ষেত্রে সমস্যা হয়ে থাকে। এ সমস্যা আমাদের কিসের জন্য হচ্ছে। এই সমস্যাটি ঠিক করার জন্য আমাদের কি কি প্রয়োজন তা নিয়ে আমি বিস্তারিত আলোচনা করতেছি। এবং এই সমস্যাটি কিভাবে সমাধান করা যায় সেটি নিয়েও আমি আর্টিকেলটি লিখলাম। সবাই শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পড়তে থাকবেন।

তার আগে আমি একটি ছোট্ট একটি বিষয় নিয়ে আলোচনা করতে চাই। সেটি হল কারো এমন এমন সমস্যা হয়েছে যে ল্যাপটপের বোতাম টিপলে কিছু ভয়েস সাউন্ড শোনা যায়। এর মানে নয় যে আপনার ল্যাপটপের কিবোর্ড কাজ করছে না। সত্যি যে আপনার ল্যাপটপের কিবোর্ড কাজ করতেছে। হয়তো আপনার অপারেটিং সিস্টেম ঠিক ভাবে বুঝতে পারছে না যে আপনার ল্যাপটপের কিবোর্ড সঠিকভাবে কাজ করছে। তবে সে ক্ষেত্রে আমি কিছু জিনিস অনুসরণ করছে বলতে পারি। এই জিনিস অনুসরণ করতে পারেন তাহলে আপনার সমস্যাটি সমাধান হয়ে যেতে পারি খুব সহজেই। তো আমি নীচে এই সমস্যাটির সমাধান করতে চাই আশা করি আপনারা ভালোভাবে পড়ে নিবেন।

যদিও এই সমস্যাটির সমাধান করার আগে। আপনাকে এক্সট্রা একটা কিবোর্ড লাগান হতে পারে। মানে এই সমস্যাটি সমাধান করার জন্য আপনাকে আলাদা একটা কীবোর্ড আপনার ল্যাপটপের সাথে যুক্ত করতে হবে। যাতে আপনি কোন পাসওয়ার্ড বা কোন কে চাপ চাপ আর দরকার হলে সেটি আপনি অনেকটা কিবোর্ড থেকে চাপতে পারেন। এবং আপনি কীবোর্ড সিস্টেম এর ফাইলটি সমস্যাটির জন্য উইন্ডোজ 10 পরীক্ষা করুন ভালোভাবে। যদি আপনার ল্যাপটপ এর কীবোর্ড কোন সফটওয়্যার সমস্যার কারণে কাজ না করে তুমি প্রথমে বুদ্ধিমান কাজটি হলো একটি সিস্টেম ফাইল স্ক্যান করে চালানো যেতে পারে। মানে সিস্টেমকে অবলম্বন করলে আপনি সাধারন কোন সমস্যা থাকলে তা অটোমেটিক ভাবে ঠিক হওয়ার জন্য অনেক ভাবে সাহায্য করে। আমি এখন আপনাদের সামনে এই সিস্টেম আগে বলতেছি যাতে আপনারা সহজ ভাবেই এই কাজ এর সমাধান করতে পারেন।

এবং এটি করতে প্রথমে আপনার উইন্ডোজ এর সার্চ বার মেনু টিপুন। তারপর আপনি সেই সার্চ বারে সিএমডি সেন্টার কমান্ড যখন আপনার ফলাফলগুলি তে অবস্থিত হয় এটিকে ডান ক্লিক করুন এবং চালানোর জন্য ক্লিক করুন। কমান্ড এরমধ্যে আমি যে লেখা টি চাপতে বললাম সেটি চেপে শেষ করার জন্য একটু অপেক্ষা করতে থাকুন।

তারপর আপনি যে কাজটি করতে পারি সেটা হল । কিবোর্ড ড্রাইভার আগে থেকে ইন্সটল করা থাকে সেটা আবার ডিলিট করে পুনরায় ইনস্টল করেন। তারপর আপনি সেই কিবোর্ডের ডিভাইস ম্যানেজার চলে যান তারপরে নিচের করুন এবং কিবোর্ড এ ক্লিক করুন। তারপর যদি আপনি দেখতে পান স্টার্ট পি এস অর্থাৎ টু কিবোর্ড যদি দেখতে পান। তাহলে বুঝতে পারবেন যে উইন্ডোস আপনার সমস্যাটি বুঝতে পেরেছে। এবং সহজে সমাধান হওয়ার পথে এগোচ্ছে। তারপর আপনি ক্লিক করে আনইন্সটল ডিভাইসে চলে যান। তারপর আপনার পিসিটি পুনরায় বুট করুন।
যদিও যত তাড়াতাড়ি সম্ভব আপনার কিবোর্ড ইনস্টল করা উচিত।

তাছাড়া যদি আপনার কিবোর্ড এর মধ্যে যদি আরো অন্যান্য প্রোগ্রাম থেকে থাকে কীবোর্ড সম্পর্কিত। তাহলে সেগুলো একটু আনইন্সটল করে পিসিকে ফ্রেশ রাখার চেষ্টা করেন। আসলে বিভিন্ন রকমের কারণেই কিছু কিছু সময় চেয়ে ল্যাপটপের কিবোর্ড কাজ করতে পারেনা। তাই কিবোর্ডের এরকম কোন সমস্যা হলে তা ঠিক করার জন্য আমার এই আর্টিকেলটি একমাত্র যথেষ্ট।

You might also like
Leave A Reply

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশ করা হবে না

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

Privacy & Cookies Policy