ওয়েবসাইটে ট্রাফিক বাড়ানোর সেরা ৫ টি পদ্ধতি

যেকোনো ওয়েবসাইটের প্রান বলা চলে সেই ওয়েবসাইটের ভিসিটরদের।আপনার ওয়েবসাইটে যদি কোন ভিসিটর না থাকে তাহলে সেই ওয়েবসাইটের কোন দামই নেই ইন্টারনেট জগতে।ভিসিটর ছাড়া ওয়েবসাইটকে আমরা মানুষবিহীন দ্বীপের সাথেও তুলনা করতে পারি।আজকের এই আর্টিকেলের মাধ্যমে আমরা জানব কোন কোন পদ্ধতি ব্যাবহার কোরে আমরা আমাদের ওয়েবসাইট এর ট্রাফিক তথা ভিসিটর ডে বাই ডে বাড়াতে পারি।

১. LONGTAIL KEYWORD ব্যাবহার করুনঃ

আপনি শুধু একটি শব্দের কিওয়ার্ড নিয়ে কাজ করবেন আর র‍্যাংক আশা করবেন তা অসম্ভব। কারণ এই কিওইয়ার্ড প্রায় সবাই ব্যাবহার করে। এজন্য, আপনাকে Longtail Keyword বেশী ব্যবহার করতে হবে, তাহলেই আপনি কাংখিত ভিজিটরের কাছে পৌছাতে পারবেন।

যেমন: আপনি ASUS Laptop বিক্রি করবেন। আপনার একজন টার্গেট কাষ্টমার যখন শুধু “ASUS Laptop” লিখে সার্চ করে তখন আপনার সাইটটি খুজে না পাবার সম্ভাবনা অনেক বেশী। কিন্তু সে যদি এভাবে খুজে “ASUS vivobook s15 s530 in bangladesh” তাহলে আপনাকে পাবার সম্ভাবনা অনেক বেড়ে যেত।কারণ, গুগলে “ASUS laptop” লিখে সার্চ দিলে প্রায় 506,000,000 গুলো ফলাফল আসে, আবার “ASUS vivobook s15 s530 in bangladesh” লিখে সার্চ দিলে মাত্র 34 টি ফলাফল আসে।আপনি প্রশ্ন করতে পারেন, এতো বড় টাফিক বাদ দিয়ে মাত্র 30-40 জন কে টার্গেট করবো কেন ? উত্তরটি খুবই সহজ, কারন এই 30-40 জনই মূলত আপনার টার্গেট কাষ্টমার। এদেরকে আপনি সাইটে আনতে পারলে কাংখিত সেল পেয়ে যাবেন।

২. EFFECTIVE টাইটেল/শিরোনাম দিনঃ

একটি ভালো টাইটেল আপনাকে এনে দিতে পারে সাধারনের তুলনায় অনেক বেশী ভিজিটর। কারন, যখন আমার গুগলে কোনো কিছু সার্চ করি, তখন আমরা বেশীরভাগই শুধুমাত্র টাইটেল/শিরোনাম এর দিকে লক্ষ্য করে পেজে ভিজিট করে থাকি। একটি ভালো টাইটেলের বৈশিষ্ট্য অনেক কিছুই হতে পারে। এজন্য এসব বিষয় গুলর দিকে লক্ষ রাখতে পারেন, যেমনঃ- Word Balance, Headline Type, Common, Uncommon, Emotional, Power, Call to action, keyword, negative word, action, Positive word, (number)noun, Skimmability etc.

৩. সকল পোস্টে INTERNAL LINK সেট আপ করুনঃ

আপনার ওয়েবসাইটের সকল পোস্টই সমান ভাবে জনপ্রিয় বা সার্চ ইঞ্জিনে র‍্যাংক করবে তা নাও হতে পারে। তাহলে বাকি পোস্টগুলিতে ভিজিটর বৃদ্ধি করবেন কিভাবে? এজন্য ইন্টারনাল লিংক করতে পারেন।আপনাকে আগে বের করতে হবে ঐসব পেজ বা পোষ্টগুলিকে যেগুলি সার্চ ইঞ্জিনে ভালো পজিশনে র‍্যাংক করে, অর্থাৎ ভালো ভিজিটর পায়। এবার ঐসব পেজ বা পোষ্টগুলি থেকে নতুন বা কম জনপ্রিয় পোষ্টগুলিকে লিংক করে দিন। এতে করে ঐ পেজটিতে ট্রাফিকের সংখ্যা বৃদ্ধির সম্ভাবনা বেড়ে যাবে।উইকিপিডিয়াকে লক্ষ্য করলেই দেখবেন, তাদের প্রতিটি পেজ এতো ভালো র‍্যাংক করার মূলেই রয়েছে, সঠিক নিয়মে ইন্টারনাল লিংক।

৪. ওয়েবসাইটকে USER FRIENDLY করুনঃ

আপনার সাইটে একজন ভিজিটর আসলে সে যেন নিরাপদ এবং স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করে। তার জন্য আপনি আপনার সাইটে সুন্দর মেনু রাখতে পারেন, প্রয়োজনমত রাইট সাইটবার ব্যবহার করা, মোবাইল-কম্পিউটার ও ট্যাব সহ বিভিন্ন ডিভাইস উপযোগী করুন ইত্যাদি।তার পারসোনালিটিকে গুরুত্ব দিন ।

৫. সোসাইল মিডিয়াই নিস (NICHE) ভিত্তিক মার্কেটিং করুনঃ

বর্তমানে সবাই সোশ্যাল মিডিয়াতে সময় দিতে পচ্ছন্দ করে। তাই আপনি যদি আপনার নিস ভিত্তিক কোনো গ্রুপ তৈরি করেন, তাহলে সেখানে একই মানসিকতার ভিজিটরদের পাবেন। যারা আপনার সাইটের যে কোনো পোষ্টকেই স্বাদরে গ্রহন করবে।তবে অবশ্যই, গ্রুপে শুধু মাত্র প্রোমোশনাল পোষ্ট দিলে হবে না। আপনাকে ভিজিটর বা অন্যান্য মেম্বারদের মতের প্রডাক্ট এর রিভিউ, সমস্যা উপকারিতা ইত্যাদি বিষয়ে পোস্ট দিতে হবে।নিস ভিত্তিক পেইড মার্কেটিং ও করতে পারেন ।

Leave a Comment