জীবন বীমা কি?কেন আমাদের জীবন বীমা চালু করা উচিত?

আপনি কি আপনার প্রিয়জনদের অনেক বেশী যত্ন করেন এবং ভালবাসেন?যদি আপনার এই প্রশ্নের উত্তর হ্যাঁ হয় তাহলে আপনার জীবিত থাকা অবস্থায় জীবন বীমা গ্রহন করা উচিত।কারন আপনি যখন মারা যাবেন তখন আপনার চালু করা এই জীবন বীমার অর্থ আপনার প্রিয়জনদের অনেক উপকারে আসবে এবং আপনার অনুপুস্থিতিতে তাঁরা সুখে জীবন যাপন করতে পারবে।আপনি জীবিত থাকা অবস্থায় আপনার প্রিয়জনদের ভবিষ্যৎ এর কথা চিন্তা করে কোন নির্দিষ্ট পরিমান অর্থ রেখে তাদের ভবিষ্যৎ নিরাপদ এবং সুরক্ষিত করে রেখে যাওয়ার একমাত্র পদ্ধতি হল জীবন বীমা চালু করা।

আপনি অথবা আমি যখন জীবন বীমা চালু করি তখন বীমা কোম্পানি গুলো আমাদের সাথে চুক্তিতে আবদ্ধ হয়।এই চুক্তি টা এমন যে আপনি জীবিত থাকা অবস্থায় তাদের একটি নির্দিষ্ট মেয়াদন্তে নির্দিষ্ট পরিমান অর্থ কিস্তির মাধ্যমে পরিশোধ করবেন,এবং তাঁরা মেয়াদ শেষে একটা নির্দিষ্ট পরিমান অর্থ সহ আপনাকে ফেরত দিবে।কিন্তু আপনি যদি কিস্তি চলাকালীন অবস্থায় মারা যান অথবা কোন রকম অসুস্থথার শিকার হন তাহলে তাঁরা আপনাকে পুর অর্থ প্রদান করবে।জীবন বীমা যেমন আপনার বেঁচে থাকাকালিন উপকারে আসে তেমনি আপনি মারা গেলেও জীবন বীমা আপনার পরিবারের উপকারে আসে।তাহলে ব্যাপারটা এমন দাঁড়ালো যে আপনার অনপুস্থিতে বীমা কোম্পানি আপনার পরিবারকে পুরোপুরি সাপোর্ট দিতে সক্ষম।

আমরা বীমা কম্পানিতে যে নির্দিষ্ট মেয়াদন্তে কিস্তিতে টাকা পরিশোধ করি তাঁকে জীবন বিমার প্রিমিয়াম বলা হয়।আপনি কত টাকার জীবন বীমা চালু করতে পারবেন,কত বছর মেয়াদে চালু করতে পারবেন,আপনার জীবন বিমার প্রিমিয়াম কত হবে তা নির্ভর করে আপনার বয়স,লিঙ্গ,আপনার শারীরিক সুস্থথা ইত্যাদির উপর।

আমরা কেন জীবন বীমা করব?

আমরা পূর্বেই জেনেছি যে জীবনবীমা আমাদের নিজের এবং আমাদের প্রিয়জনদের ভবিষ্যৎ নিরাপদ এবং সুরক্ষার জন্য জীবনবীমা চালু করব।এক কথায় জীবন বীমা চালু করলে অন্তত আমাদের এই চিন্তা মাথায় আসবে না যে আমি বা আপনি মারা গেলে আপনার পরিবারের সদস্যদের ভবিষ্যৎ কি হবে?তাঁরা কি আমাদের চলে যাবার পর তাদের জীবন সাসছন্দে চালিয়ে নিতে পারবে?আপনার ছেলে মেয়েদের পড়াশুনা চালু থাকবে নাকি বন্ধ হয়ে যাবে এসব নিয়ে আমাদের আর কোন চিন্তা করতে হবে না।কারন আপনি মারা গেলেও জীবনবীমা কোম্পানি আপনার করা বীমার পুর অর্থ আপনার পরিবারের হাতে তুলে দিবে।সুতরাং এই দিক টা চিন্তা করে হলেও আমাদের সকলের জীবন বীমা চালু করা উচিত।

বর্তমান সময়ে জীবন বীমা হচ্ছে জনপ্রিয় সঞ্চয় পদ্ধতি গুলোর একটি।কারন এটি সুধু সঞ্চয় ই না।এটি সঞ্চয় এর পাশাপাশি আপনাকে নিরাপত্তা দিতেও সক্ষম।যেমনঃ আপনি হয়তবা অসুস্থ কিন্তু আপনার সন্তানকে বিবাহ দিতে হবে সেই মুহুরতে এই জীবন বীমার টাকা আপনাকে সাহায্য করবে।আপনি হয়ত কোন দুর্ঘটনার শিকার হলেন সেই মুহুরতেও এই সঞ্চয় আপনাকে সাহায্য করবে।অসুস্থ হলে চিকিৎসা খরচও অনেক জীবন বীমা কোম্পানি বহন করে।যা প্রচলিত অন্যান্য সঞ্চয় পদ্ধতিতে বিদ্যমান নয়।সুতরাং এক কথায় এটি এমন একটি সঞ্চয় পদ্ধতি যা আপনাকে সকল প্রকার বিপদে সাহায্য করতে সক্ষম।আর এই কারনেই আমাদের সকলের উচিত আমাদের নিজের এবং আমাদের একান্ত প্রিয়জনদের ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে আজই জীবনবীমা পলিসি গ্রহন করা।

Leave a Comment