রেজিস্টর কি? ও রেজিস্টার সম্পর্কে সকল ব্যাখ্যা!

আসসালামু আলাইকুম। আসাকরি সবাই ভালই আছেন। আজকে আমি আপনাদের জন্য একটি অতি দরকারি একটি আর্টিকেল নিয়ে হাজির হয়েছি। আজকের আমার এই আর্টিকেলটি তাদের জন্যে কাজের। যারা ইলেক্ট্রনিক্স নিয়ে কাজ করেন। বা যারা ইলেক্ট্রনিক্স এর বিভিন্ন কম্পোনেন্ট নিয়ে জানতে চান। আমি এর আগের আর্টিকেলটি লিখেছিলাম ক্যাপাসিটর নিয়ে। আপনারা চাইলে সেই আর্টিকেল এ পরে আস্তে পারেন। তো আর কথা বাড়াব না । এখন আমি রেজিস্টর সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করি।

রেজিস্টর এমন একটি কম্পোনেন্ট যা ইলেক্ট্রনিক্স এর সকল কম্পোনেন্ট এর চাইতে অনেক বেশি পরিমানে ব্যাবহার করা হয়ে থাকে। মানে এটি বুহুল ব্যবহৃত একটি পার্টস। তো সবার আগে আমরা জেনে নেই যে এই রেজিস্টর কি। রেজিস্টর একটি ইংলিশ শব্দ এর বাংলা অর্থ হচ্ছে রোধ বা রোধক। সাধারনত এর কাজ একটি সেটি হচ্ছে কারেন্ট বা বিদ্যুৎ এর শক্তির মধ্যে বাঁধা প্রধান করা। বা ভোল্টেজের মধ্যে বাঁধা প্রদান করার রেজিস্টর এর কাজ। আমি আগেই বলেছিলাম যে এই রেজিস্টরের ব্যবহার অনেক। যা ইলেক্ট্রনিক্স এর অন্য কোনো কম্পনেট এতো বেশি ব্যবহার করা হয়ে থেকে না।

আপনই একটু লক্ষ্য করলেই দেখতে পারবেন যে। আপনাদের বাড়ির কনো ইলেক্ট্রনিকস ডিভাইস নস্ট হয়ে গেলে আপনি নিশ্চই দেখত পান সেই সার্কিটের মধ্যে কতো বেশি পরিমানের রেজিস্টর ব্যবহার করা হয়েছে। অথবা আপনার বাসার টিভি খুল্লেই দেখতে পাবেন যে সেখানে শত শত রেজিস্টর ব্যবহার করা হয়েছে। আপনি যেকোনো ইলেক্ট্রনিক্স সার্কিট এর মধ্যেই এর ব্যবহার দেখতে পারবেন। রেজিস্টর অনেক রকমের হয়ে থাকে। সেটি নিয়ে আমি একটু পরে আলোচনা করি। তার আগে আমি আলোচনা করি এই রেজিস্টরকে কি কাজের জন্য ব্যবহার করা হয়।

রেজিস্টর মুলত যে ভাবে কাজ করে থাকে। রেজিস্টর যেভাবে কাজ করে সেটা যদি আপনাদের বোঝাতে যাই তাহলে একটা ছোট ধারনা দিতেই হয়। মনে করেন আপনার একটি ডিসি লাইনের ভোল্টেজ সোর্স ১২ ভোল্ট । আর আপনি ঐ লাইনে যে ইলেকট্রিক জিনিস ব্যবহার করবেন সেটার ইনপুট ভোল্টেজ রেঞ্জ ৫ ভোল্ট। সেক্ষেত্রে যদি আপন সেই ১২ ভোল্টেজ এর সাথে ঐ ৫ ভোল্টেজ এর জিনিস চালানোর জন্যে যুক্ত করেন। তাহলে আপনার সেই জিনিসটি নস্ট হয়ে যাবে। তাই সেটি চালানোর জন্যে নির্দিষ্ট মানের একটি রেজিস্টর ব্যবহার করতে হবে। তবেই সেটি আপনি ১২ ভোল্ট থেকে ৫ ভোল্টেজ করে সেই ডিভাইসটি চালাতে পারবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *