আসুন জানি ডোমেইন নাম কি?কেন ডোমেইন নাম রেজিস্ট্রেশন করে নিতে হয়

আপনি যখন এই ওয়েবসাইট ভিসিত করছেন তখন আপনি অবশ্যই আপনার ইন্টারনেট ব্রাউজারে একটি নাম লিখে তার পরে এই ওয়েবসাইটে এসেছেন।আর এই নাম ই হচ্ছে ডোমেইন নাম।এবার প্রশ্ন হল কেন আমাদের ডোমেইন নাম কিনতে হবে এবং কেনই বা আমাদেরকে ডোমেইন নাম রেজিস্ট্রেশন করে নিতে হয়?কারন আপনি নিশ্চয় চাইবেন আপনার কোম্পানির কোন নকল প্রতিষ্ঠান বাজারে না আসুক।সব সময় চাইবেন আপনার প্রতিষ্ঠান অথবা আপনার কোম্পানির প্রোডাক্ট যেন ইউনিক থাকে।কারন এই নামেই আপনাকে সারা পৃথিবী ব্যাপী মানুষ চিনবে।আর এই কারনেই আমাদের ডোমেইন নাম রেজিস্ট্রেশন করে নিতে হয়।যেন অন্য কেউ আপনার কোম্পানির ডোমেইন ব্যাবহার করতে না পারে।আর এই কারনেই একই নামে শুধু এক বারই ডোমেইন রেজিস্ট্রেশন করা সম্ভব।

আমরা যারা অনলাইন সম্পর্কে মোটামুটি জানি এবং ওয়েবসাইট সম্পর্কে আইডিয়া আছে তাঁরা অবশ্যই পাঠাও এর নাম শুনেছি।পাঠাও মূলত রাইড শেয়ারইং এর বিজনেস করে।তাঁরা কিন্তু মূলত তাদের এই অনলাইন নির্ভর সার্ভিস এর জন্যই এতটা জনপ্রিয় হতে পেরেছে।কিন্তু তাঁরা যদি সেই মান্ধাতার আমলের নিয়মে তাদের বিজনেস চালু করত আমার মনে হয় হাতে গোনা কয়েকজন মানুষ ছাড়া তাদের এই কোম্পানি এবং সার্ভিস সম্পর্কে জানত।

তাদের কে যেন মানুষ সহজে চিনতে পারে এবং দ্রুত যেন তাদের বিজনেসের প্রসার ঘটে সেই লক্ষে তাঁরা শুরুতেই তাদের বিজনেসের জন্য ডোমেইন নাম রেজিস্ট্রেশন করে নিয়েছে।তাঁরা ওয়েবসাইট এর পাশাপাশি বর্তমানে মোবাইল অ্যাপ এর মাধ্যমেও সেবা দিয়ে থাকে।আর ইন্টারনেট এর কল্যাণে তাদের গ্রাহক তাদের ওয়েবসাইট এবং মোবাইল অ্যাপ এর মাধ্যমে খুব দ্রুত তাদের সাথে যোগাযোগ করতে পারছে।কিন্তু তাঁরা যদি সেই পুরনো পদ্ধতি ব্যাবহার করে তাদের বিজনেস চালু করত তাহলে তাদের বিজনেসের পরিধি এত দ্রুত বারত না বলে আমার বিশ্বাস।আপনার কি মনে হয় তা এই পোস্ট এর কমেন্ট বক্সে জানাতে ভুলে যাবেন না।এইবার আশা করি বুঝতে  পেড়েছেন কেন আমাদের ডোমেইন নাম রেজিস্ট্রেশন করে নিতে হয়।

এখন প্রশ্ন হল ডোমেইন এবং হোস্টিং সেবা কিনবেন?বর্তমানে আমাদের দেশে অনেক হোস্টিং কোম্পানি আছে যারা খুবই সততার সাথে ডোমেইন এবং হোস্টিং কেনাবেচা করছে।আপনি চাইলে তাদের থেকে আপনার হাতে থাকা বিকাশ রকেট অ্যাকাউন্ট ব্যাবহার করে আপনার পছন্দের ডোমেইন নাম কিনে নিতে পারেন।এছারা আপনার যদি ইন্টারন্যাশনাল মাস্টারকার্ড অথবা ভিসা কার্ড ( যেকোনো ধরনের ইন্টারন্যাশনাল ডেবিট অথবা ক্রেডিট কার্ড) থাকে তাহলে আপনার কার্ড ব্যাবহার করে আপনি ইন্টারন্যাশনাল কোম্পানি থেকে আপনার পছদের ডোমেইন নাম এবং হোস্টিং প্যাকেজ ক্রয় করে আপনার নিজের ওয়েবসাইট চালু করে নিতে পারেন।

তবে আমি আপনাকে পার্সোনালই অনুরধ করব আপনি যদি ইংলিশে অনেক কাঁচা হয়ে থাকেন এবং আপনার কমুনিকেশন করার ক্ষমতা অনেক দুর্বল হয়ে থাকে তাহলে আপনার জন্য দেশি হোস্টিং কোম্পানি হল বেস্ট সল্যুশন।কারন আপনি দেশি কোম্পানির কাছে থেকে বাংলাতেই কথা বলে সাপোর্ট নিতে পারবেন যদি আপনার ডোমেইন/হোস্টিং/ওয়েবসাইট এর কোন টেকনিক্যাল সমস্যা হয়।আর বিদেশি কোম্পানির কাছে থেকে কিনলে আপনার ওয়েবসাইট এর কোন টেকনিক্যাল সমস্যা হলে অবশ্যই আপনাকে ইংলিশ ভাষাতে তাদের সাথে যোগাযোগ করতে হবে।আর আপনি যদি ইংলিশে একজন স্কিলড পারসন হয়ে থাকেন তাহলে আপনি কোন দ্বিধা ছারাই ইন্টারন্যাশনাল কোম্পানির ডোমেইন হোস্টিং সেবা গ্রহন করতে পারেন।

Leave a Comment