টু স্টেপ ভেরিফিকেশন কীভাবে কাজ করে?কেন টু স্টেপ ভেরিফিকেশন ব্যাবহার করব?

প্রতিদিন আমরা ফেসবুক,গুগল,ইয়াহু ইত্যাদি ব্যাবহার করে থাকি আমদের প্রয়োজনে।আর এসব ব্যাবহার করে থাকলে আমরা অবশ্যই টু স্টেপ ভেরিফিকেশন এই শব্দটির সাথে বহুল পরিচিত।ফেসবুক জিমেইল গুগল আর ইয়াহু যেটাই বলেন না কেন।টু স্টেপ ভেরিফিকেশন ইন্টারনেট দুনিয়াতে একটি বহুল ব্যবহৃত এবং কার্যকর নিরাপত্তা সিস্টেম।

আমাদের প্রায় সকল কাজ কম্পিউটার এবং ইন্টারনেট নির্ভর হবার কারনে আমরা দিন দিন আরও বেশী নির্ভর হয়ে পরছি ডিজিটাল মাধ্যম গুলোর উপর।আমাদের প্রায় সকলের একান্ত গোপনীয় তথ্য ও আমরা তুলে দিচ্ছি অনলাইন এর জনপ্রিয় ওয়েবসাইট এর হাতে।যাই হোক আমাদের আজকের বিষয় এটা না আমাদের আজকের বিষয় টু স্টেপ ভেরিফিকেশন কীভাবে কাজ করে?কেন টু স্টেপ ভেরিফিকেশন ব্যাবহার করব?কিন্তু আমাদের একটা কথা মানতেই হবে যে আমাদের তথ্য গুলো অনলাইন থেকে যত সহজে চুরি হওয়া সম্ভব অফলাইনে এত সহজে কিন্তু সম্ভব না।কিন্তু একটু সাবধান হলেই আমাদের এই তথ্য চুরি হওয়া থেকে রক্ষা করতে পারি।আর এই জন্য আমরা ব্যাবহার করতে পারি টু স্টেপ ভেরিফিকেশন সিস্টেম।

টু স্টেপ ভেরিফিকেশন কীভাবে কাজ করে?

টু স্টেপ ভেরিফিকেশন সিস্টেম মূলত আপনার হাতের মোবাইল ফোনের নাম্বার এর সাথে যুক্ত থাকে।আপনি যখন আপনার অনলাইনে এর অ্যাকাউন্ট গুলতে লগিন করতে যান,তখন সেই নির্দিষ্ট ওয়েবসাইট থেকে আপনার মোবাইল নাম্বারে একটি ভেরিফিকেশন কোড সেন্ট করা হয় এবং আপনি যখন সেই ভেরিফিকেশন সেই ওয়েবসাইটে প্রবেস করান তখন আপনি সেই ওয়েবসাইটে প্রবেস করার অনুমতি পান।তবে উল্লেখ্য যে আপনাকে আগে থেকে অবশ্যই আপনার অ্যাকাউন্ট এর সেটিংস অপশন থেকে টু স্টেপ ভেরিফিকেশন নিরাপত্তা সিস্টেমটি চালু করে রাখতে হবে।

কেন টু স্টেপ ভেরিফিকেশন ব্যাবহার করব?

উপরের অংশ পড়ার পর নিশ্চয়ই বুঝতে পেরেছেন টু-স্টেপ বা টু-ফ্যাক্টর ভেরিফিকেশন কি।এবং কেন এই ভেরিফিকেশন এত গুরুত্বপূর্ণ এটাও জানতে পারলাম।এবার আমরা জানবো কেন আমরা টু-স্টেপ বা টু-ফ্যাক্টর ভেরিফিকেশন ব্যাবহার করব।ধরেন আপনি আপনার কম্পিউটার বা মোবাইল ফোন থেকে অনেক গুলো অ্যাকাউন্ট পরিচালনা করেন।যেমনঃ ফেসবুক,জিমেইল,ইয়াহু,ইউটিউব ইত্যাদি।এবং আপনার অ্যাকাউন্ট গুলতে টু-স্টেপ বা টু-ফ্যাক্টর ভেরিফিকেশন চালু রাখেন তাহলে আপনি সুধু মাত্র ইউজার নাম এবং পাসওয়ার্ড দিয়ে এই অ্যাকাউন্ট গুলতে লগিন করতে পারবেন না।সাথে দরকার পরবে একটি অতিরিক্ত নিরাপত্তা কোড।যা আপনার সংযুক্ত মোবাইল নাম্বারে সেন্ট করা হবে।এখন প্রশ্ন হল এই সিস্টেম এর উপকারিতা কি?ধরেন আমি আপনার সকল অ্যাকাউন্ট এর ইউজার নাম এবং পাসওয়ার্ড জানি কিন্তু টু-স্টেপ বা টু-ফ্যাক্টর ভেরিফিকেশন চালু থাকার কারনে আমি আপনার কোন অ্যাকাউন্টে লগিন করতে পারব না।লগিন করার জন্য অবশ্যই আপনার মোবাইলে আসা কোড টি লাগবেই।ফলে আপনার অনলাইন ভিত্তিক সকল অ্যাকাউন্ট থাকবে পুরোপুরি নিরাপদ এবং তথ্য থাকবে সুরক্ষিত।

Leave a Comment