ভালো কাস্টমার ফিডব্যাক পাবার ৩ টি সেরা টিপস (কাস্টমার ফিডব্যাক-পার্ট ০৩)

একটা ভালো ব্যবসা এবং একটি অসাধারন ব্যবসার মধ্যে পার্থক্য খুব বেশী না। সামান্য বলা যায়।কি সেটা, যার কারনে একটা ব্যবসাকে সবাই অসাধারন বলে? ক্রেতাগণ সেসব ব্যবসাকে পছন্দ করে বেশী অন্যদের তুলনায়, যারা নিয়মিত ভাবে কাস্টমারদের খাতির করে, ভালো কাস্টমার সার্ভিস দেয় এবং কাস্টমারদের কেয়ার করে, খাতির করে।

একজন কাস্টমার সব সময় সেলার দের নিকট থেকে গুরুত্ব পেতে ভালবাসেন। এটা সবার জন্যই। আপনি, আমি এবং অন্যরা সবাই এটা ভালবাসবেন। একদম শীর্ষস্থানীয় যে সব ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, তাদের কে যখন জিজ্ঞেস করা হয় যে, তাদের সাফল্যের কোন গোপন কোন সুত্র আছে কিনা, তখন তারা সবাই স্বীকার করেন যে, তাদের এত জনপ্রিয়তার মুলে হচ্ছে কাস্টমারদের কথা মন দিয়ে শুনা, তাদের ফিডব্যাক গুলি নিয়ে ভালো ভাবে চিন্তা করা, গবেষণা করা এবং সেটার উন্নতি করা।এখন যারাই ভালো কাস্টমার ফিডব্যাক পেতে চান, তারা খুব ভালো ভাবে এটা বুঝতে পারছেন যে, কাস্টমার খাতিরের গুরুত্ব কতোটুক।

কাস্টমার ফিডব্যাক কে আরও ভালো করার উপায় কি?

সব ধরনের ফিডব্যাক কিন্তু সমান নয়। কিছু আপনি পাবেন ইতিবাচক, আবার কিছু পাবেন একদম নেতিবাচক। নিচের টিপস গুলি যদি আপনি কাজে লাগাতে পারেন, তাহলে খুব ভালো ভাবে আশা করা যায় যে, আপনি ভালো কাস্টমার ফিডব্যাক ই পাবেন।

ক্রেতাকে নিজ থেকে জিজ্ঞেস করুন আপনার সারভিস/পন্য সম্পর্কে।

বেশিরভাগ ক্ষেত্রে ক্রেতাগণ নিজ থেকে কাস্টমার ফিডব্যাক দেন না। সব জায়গাতেই। যদি পন্য খুবই তাদের পছন্দ হয়, তাহলেই দেন। অথবা পন্য যদি একদম খারাপ মানের হয়, কিংবা কাস্টমার সার্ভিস নিয়ে যদি তাদের বাজে অভিজ্ঞতা হয়, তবেই তারা নিজ থেকে ফিডব্যাক দেন।

কিন্তু আপনি যদি নিজ থেকেই তাদের কাস্টমার ফিডব্যক সম্পর্কিত প্রশ্ন গুলি করে ফেলেন, তাহলে তারা উত্তর দিবেন। তখন আপনি তাদের থেকে সত্যিটা জেনে নিতে পারবেন। এখন তাহলে বুঝতে পারছেন তো, কেন সেরা সেরা ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলি এত জনপ্রিয়? প্রতি টা কাস্টমার থেকে তথ্য নিয়ে, তাদের ফিডব্যাক নিয়ে তারা সরাসরি গবেষণা বা রিসার্চ শুরু করে দেয়। এই জন্যই তারা এত টা সফল।

প্রশ্ন করবেন সহজ ভাবে এবং সংক্ষিপ্ত

কাস্টমারদেরকে আপনি যদি বড় প্রশ্ন করেন, তাহলে তারা বিরক্ত হন। এই জন্য প্রশ্ন করবেন খুব সহজ করে।মনে রাখবেন সব সময় যে, ক্রেতারা প্রশ্নের উত্তর দিতে বাধ্য নন। আপনি সর্বোচ্চ তাকে জিজ্ঞাসা করতে পারেন। এখন তার ইচ্ছা না থাকলে আপনি তাকে জোর করে উত্তর নিতে পারবেন না।কিন্তু আপনি যদি তাদেরকে সহজ প্রশ্ন করেন, তাহলে তারা উৎসাহিত হবেন নিজ থেকেই উত্তর দিতে।হয়ত আপনি যা জানতে চাইছেন, সেটা তো বলবেন ই তিনি, এর বাইরে আপনাকে নিজ থেকে আরও কিছু পরামর্শ দিয়ে দিতে পারেন।আমার ক্ষেত্রে এরকম হয় মাঝে মাঝে। আমি আমার ক্লায়েন্টদের অনেকের সাথেই বন্ধুর মত আড্ডা দেই।এমসিকিউ টাইপের প্রশ্ন করতে পারলে খুব ভালো। সেখানে তারা অনেক গুলি অপশন থেকে সঠিক উত্তর টা বেছে নিতে পছন্দ করবেন।

সঠিক প্রশ্ন করবেন

এর আগের পোস্টে ( পার্ট০২ তে) আমি কিছু প্রশ্নের কথা বলেছি। যেগুলি একদম বাছাই করা, গুরুত্বপূর্ণ এবং সহজ। এই ধরনের সঠিক প্রশ্ন সব সময় করবেন। তাহলে ভালো উত্তর পাবেন, যেটা দিয়ে আপনি আপনার সেবা দিয়ে ভালো ফিডব্যাক পেতে পারেন ভবিষ্যতে। একই প্রশ্ন অনেক ভাবেই কিন্তু করা যায়। ধরেন, আপনি এটা জিজ্ঞাসা করলেন যে, আপনি কি আমাদের পন্য পছন্দ করেছেন? এখন ক্রেতা সরাসরি হ্যা/না বলল। এর বেশী কিছু বলল না।

কিন্তু আপনি যদি এভাবে জিজ্ঞাসা করেন যে, আমাদের পণ্যের উন্নতির জন্য আপনার মতে কি কি করা দরকার?তাহলে দেখবেন ক্রেতা নিজ থেকেই আপনার উত্তর দিবেন, ভালো পরামর্শ দিবেন।আর্টিকেলের মূল লেখকঃ MD Mustafizur Rahman Khan

Leave a Comment